রবিবার, ২১শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং। ৭ই কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ। ভোর ৫:১৩








প্রচ্ছদ » বিশ্ব সংবাদ

রোহিঙ্গা মুসলিমরা স্থানীয় নয় বলে জানালেন মিয়ানমারের সেনাপ্রধান

মিয়ানামার সেনাবাহিনীর প্রধান মিন অং হ্লাইং যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত স্কট মারসিয়েলের সঙ্গে এক বৈঠকে দাবি করেছেন রোহিঙ্গা মুসলিমরা মিয়ানমারের স্থানীয় বাসিন্দা নন। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ কথা জানিয়েছে।

গতকাল বুধবার মিয়ানমারের বৃহত্তম শহর ইয়াঙ্গুনে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত স্কট মারসিয়েলের সঙ্গে সিনিয়র জেনারেল হ্লাইংয়ের বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।
রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বৈঠকে হ্লাইং উত্তর রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর তার বাহিনীর অতিরিক্ত শক্তি প্রয়োগের অভিযোগ সম্পর্কে কিছু বলেননি এবং বাংলাদেশে পালিয়ে যাওয়া রোহিঙ্গাদের সংখ্যা বাড়িয়ে বলার ক্ষেত্রে গণমাধ্যমের ভূমিকা আছে বলে অভিযোগ করেছেন। বৈঠকে রোহিঙ্গাদের তিনি বাঙালি বলে উল্লেখ করেন এবং সমস্যাটির জন্য ব্রিটিশ উপনিবেশবাদীদের দায়ী করেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতকে তিনি বলেন, বাঙালিদের এই দেশে মিয়ানমার নিয়ে আসেনি, উপনিবেশবাদীরা নিয়ে এসেছিল। তারা এখানকার স্থানীয় নয়, আর রেকর্ডে প্রমাণ আছে উপনিবেশিক আমলে তাদের রোহিঙ্গা বলা হত না, বাঙালি বলা হত।

যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকে হ্লাইং অভিযোগ করে বলেছেন, বিদ্রোহীরা সরকারের সঙ্গে সম্পর্ক আছে এমন ৯০ জন হিন্দু ও ৩০ জন রোহিঙ্গাকে হত্যা করেছে। তিনি জানান, বিদ্রোহীরা নাগরিকত্ব যাচাইয়ের একটি কর্মসূচীর বিরোধীতা করছে, যে কর্মসূচীতে তাদের বাঙালি বলা হয়েছে, হামলার পেছনের কারণ এটাই।

 

 

হামলার জন্য আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (এআরএসএ) বিদ্রোহীদের দায়ী করে তিনি বলেন, এআরএসএ-র নেতৃত্বে স্থানীয় বাঙালিরা এসব হামলা চালিয়েছে। সম্ভবত সে কারণেই নিরাপত্তাহীনবোধ করে তারা পালিয়ে গেছে।

তিনি বলেন, বাঙালিদের সত্যিকারের জায়গা বাংলা। সেখানে নিরাপদে থাকতে পারবে এ ধারণা থেকেই সম্ভবত সেখানে পালিয়েছে তারা।
মিয়ানামারের এই জেনারেল বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটির সবচেয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তি। রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলের নিন্দা সত্বেও মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর ভাবমূর্তি নিয়ে হ্লাইং এর যে তেমন অনুভূতি নেই তার আপোষহীন মনোভাবেও এর ইঙ্গিত মিলেছে বলে রয়টার্সের প্রতিবেদনে মন্তব্য করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রোহিঙ্গাদের বিষয়ে মিয়ানমারের মানুষদের মধ্যে তেমন কোনো সহানুভূতি নেই এবং তাদের বিরুদ্ধে সামরিক বাহিনীর অভিযান সেখানে একটি জনপ্রিয় বিষয়।

মিশরে চালু হলো বিশ্বের প্রথম ফতোয়া বুথ
কোন দেশ কত রোহিঙ্গা মুসলিমকে আশ্রয় দিয়েছে, জানেন কি?
নিরাপত্তার জন্য রাখাইনে শান্তিরক্ষী মিশন চায় রোহিঙ্গারা


সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী শাকিলা জাফর এখন কোথায় আছেন, কেমন আছেন?

শিশু চুরি করে এনে ‘বলি’ দেওয়া হচ্ছিল এক পুজোয়

লালমনিরহাটে বিয়ের মাত্র ৩ দিনের মাথায় স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে দিলেন স্ত্রী! অদ্ভুত এক কারনে

জমজমের পানি দাঁড়িয়ে পান করতে হয় কেন, না করলে সমস্যা কী?

মুসলিম রোহিঙ্গাদের ওপর হামলায় বৌদ্ধ ভিক্ষু গ্রেপ্তার

পৃথিবীতে সবচেয়ে রহস্য ঘেরা পাঁচটি স্থান যেখানে সাধারন মানুষের সম্পূর্ণ প্রবেশ নিষিদ্ধ

ডুবে গেছে রাস্তা-ঘাট, জনজীবন বিচ্ছিন্ন

প্রবাসের মর্গে পড়ে থাকা বাংলাদেশি নারীর পরিচয় মিলেছে

আগামীকাল ৩ পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

সংযুক্ত আরব আমিরাতে প্রবাসী বাংলাদেশি ভাইকে হত্যা করল আপন ভাই!

পানির নিচে ৩০ ঘণ্টার পরেও জীবিত সোহাগ!

পরীক্ষা হবে শুধু সৌন্দর্যের উপর! পাশ করলেই চাকরি

রোহিঙ্গা সঙ্কট ; মিয়ানমারকে পূর্ণ সমর্থন করল চীন

হায় অর্থকষ্ট: স্ত্রীর মৃত্যুর প্রহর গুণছেন অসহায় স্বামী

বাংলাদেশকে উন্নতির রাস্তা বলে দিলেন দ. আফ্রিকার ব্যাটিং কোচ

ভালোবেসে বিয়ে করা বড় ভুল হয়ে গেছে’ কেন এই কথা বলছে লালমনিরহাটের মেঘনা

সবাই এই বৃদ্ধাকে ভেবেছিল মানসিক ভারসাম্যহীন, কিন্তু পরিচয় জানার পর সবাই অবাক

যৌন চাহিদা মেটাতে নতুন যৌন পল্লী

যুক্তরাষ্ট্র কোনো সভ্য রাষ্ট্র নয়: এরদোগান

আর একদিন পর বাজারে আসছে ইলিশ




error: Content is protected !!
Copy to clipboard
[X]