রবিবার, ২১শে জুলাই, ২০১৮ ইং। ৭ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। রাত ৩:১৮








প্রচ্ছদ » আইন ও আদালত

ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় বহালও থাকতে পারে রিভিউতে

ষোড়শ সংশোধনী বাতিল রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ শুনানীর পর যদি আপীল বিভাগ মনে করেন, রায়ে রিভিউ করার মত কোনো অংশ আছে, তবে আপীল বিভাগ তাদের রায় রিভিউ করতে পারে। আপীল বিভাগ তার রায় রিভিউ করে হয় তাদের পূর্বের রায় বহাল রাখতে পারে অথবা তাদের রায়কে আরো ভালোভাবে বিশ্লেষন করে রায়ে কিছু পরিবর্তন আনতে পারে। টিভিএনএ’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন সাবেক এ্যাটর্নি জেনারেল এ এফ হাসান আরিফ।

তিনি বলেন, রিভিউ পিটিশন দাখিল করার অধিকার যে কোনো নাগরিকেরই আছে, যদি তিনি আপীল বিভাগের কোনো রায়ে সংক্ষুব্ধ হন অথবা রায়ের মধ্যে যদি রিভিউ করার মত কিছু থাকে। রিভিউ করার জন্য অবশ্য বিচার বিভাগীয় নীতি প্রচলিত রয়েছে। আপীল বিভাগের যে নিয়ম রয়েছে, তাতেই রিভিউ পিটিশনের গাইডলাইন রয়েছে। সে নীতিমালা অনুসরন করেই যদি রিভিউ পিটিশন দাখিল করা হয়, তবে আপীল বিভাগের নিজস্ব ক্ষমতাবলেই তাদের রায়কে তারা রিভিউ করতে পারেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

হাসান আরিফ বলেন, প্রধান বিচারপতি পদ পূরণ করে না করে রিভিউ শুনানীর ব্যাপারে দ্বিমত রয়েছে। এখানে কিছু প্রশ্ন আসতে পারে। প্রথমত, মূল রায়টি দিয়েছিলেন সাতজন বিচারক, এখন বিচারক আছেন পাঁচজন। এখন সাতজন বিচারকের রায় পাঁচজন বিচারক রিভিউ করতে পারবেন কিনা এটি একটি প্রশ্ন। কেননা, একটি জুরির রায় যদি রিভিউ করতে হয়, তবে রিভিউ করার জন্য যে বেঞ্চ গঠিত হবে, তাতে হয় সমসংখ্যক বিচারক থাকতে হবে অথবা তার থেকে অধিক বিচারকের বেঞ্চে রায়টি রিভিউ করতে হবে।

যদিও এরূপ কোনো আইন লিখিত নেই, তবে এটি একটি প্রচলিত রীতি। দ্বিতীয় প্রশ্নটি হল, প্রধান বিচারপতিও সেই রায় প্রদানকারী বিচারকদের মধ্যে একজন ছিলেন। এখন প্রধান বিচারপতির পদ শূণ্য অবস্থায় এই রায়টির রিভিউ কতটুকু যৌক্তিক হবে, তাও একটি প্রশ্ন। সংবিধানের মধ্যে স্বীকৃত কিছু রীতিনীতি রয়েছে। এই রীতিনীতি গুলো পরবর্তীতে স্বীকৃতি পায়, সংবিধানের অংশে পরিণত হয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যে সংবিধান রয়েছে, তা ২৫০ বছরের পুরাতন। তার ভাষার মধ্যেও অনেক পরিবর্তন ঘটে গেছে। তার পরেও সেটি চলছে কেননা, ধীরেধীরে যে রীতিনীতির স্বীকৃতি এসেছে, তাই সংবিধানের অংশে পরিণত হয়েছে।

নিম্ন আদালতের বিচারকদের চাকরির শৃঙ্খলা-সংক্রান্ত বিধিমালার প্রকাশিত গেজেট মাজদার হোসেন মামলার রায়ের সাথে এটি সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। সিনিয়র আইনজীবীদের এ বিষয়টি পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখা প্রয়োজন রয়েছে বলেন মনে করেন সাবেক এ্যাটর্নি জেনারেলে এ এফ হাসান আরিফ। – আমাদের সময়

ড্যাফোডিলের ছাত্রকে ধর্ষণ করে হত্যা : বন্ধুর যাবজ্জীবন!
আলোচিত মাসদার হোসেন মামলা থেকে ড. কামাল ও আমীরকে প্রত্যাহার!
সোনালী, জনতা ও রূপালী ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত


সর্বশেষ সংবাদ

কাশ্মিরের মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ

আজকে খালেদা জিয়ার রাজনীতির ৩৪ বছর পূর্ণ হল

এই ধরণের বিষয়ে ঝুঁকি নেয়া যায় না, অপেক্ষা করা সাধারণ বিষয়

যুক্তরাষ্ট্র নতুন করে যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করল ইরানের উপর

আমি যদি প্রধানমন্ত্রী হতাম ঘাড় ধরে মতিয়া চৌধুরীকে বের করে দিতাম

অনলাইনে মেয়েকে বিক্রি, বাবার ৬০ বছর জেল

চট্টগ্রামে তাবলিগ মসজিদে উত্তেজনা, পুলিশ-পাহারা

সজনে ডাঁটার ঔষধি গুণাগুণ

নতুন নিয়মে পিতৃত্বকালীন ছুটি এক মাস!

ফেব্রুয়ারির মধ্যে কঙ্গনার বিয়ে

মেয়ের চিকিৎসার টাকা যোগাতে বুকের দুধ বিক্রি!

রাজধানীতে নকল প্রযুক্তি পণ্যে সয়লাব বাজার

আইকন তালিকা থেকে বাদ পড়ল সাব্বির রহমান

শূন্যে ছুড়ে বাচ্চাকে আদর করলে হতে পারে মহাবিপদ!

রাজধানীতে ‘জঙ্গি’ অভিযানঃ নিহত ৩

দাম কমেছে পেঁয়াজের

বিমানবন্দর থেকে কাকরাইলে মাওলানা সাদ, সারাদেশ অচল করে দেয়ার হুমকি

‘আর কত বাঁধ হবে তিস্তার ওপরে?’

স্বামী-স্ত্রীর উচ্চতার পার্থক্যেই দাম্পত্য সুখের হয়

ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে খুলনায় আহত ৭





error: Content is protected !!
Copy to clipboard