রবিবার, ২১শে জুলাই, ২০১৮ ইং। ৭ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। রাত ৩:১৩








প্রচ্ছদ » প্রবাস

জনশক্তি রপ্তানিতে রেকর্ড, এক বছরে ১০ লাখ বিদেশে গেছেন

২০১৭ সালে বাংলাদেশ থেকে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ১০ লাখের বেশি শ্রমিক বৈধ পথে কাজ করতে গেছেন। এটা জনশক্তি রপ্তানিতে কোনো একটি বছরের সর্বোচ্চ।

এই সংখ্যা আগের বছরের তুলনায় প্রায় ৩৩ শতাংশ বেশি। আর কর্মীদের মধ্যে তিনটি দেশেই গেছে প্রায় সাড়ে আট লাখ।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের হিসাবে সদ্য বিদায় নেয়া বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ১০ লাখ আট হাজার ৫২৫ জন কর্মী বিদেশে গেছেন।

এর আগে ২০০৮ সালে ৮ লাখ ৭৫ হাজার ৫৫ জন কর্মী বিদেশ গিয়েছিলেন। এটাই এত দিন এক বছরে সর্বোচ্চ জনশক্তি রপ্তানির রেকর্ড ছিল।

আওয়ামী লীগ ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পর নয় বছরে প্রায় ৫২ লাখ কর্মীর বিদেশে চাকরি হয়েছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। তারা বলছেন, বর্তমান সরকার দেশে কর্মসংস্থান বাড়ানোর পাশাপাশি পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে জনশক্তির বাজার খোঁজার নির্দেশ দিয়েছে। আর এর সুফল মিলছে। আর জনশক্তি রপ্তানিতে সরকার যেমন বিভিন্ন দেশের সঙ্গে যোগাযোগ করছে, তেমনি দেশে শ্রমিকদের ভাষা থেকে শুরু করে নানা কাজের প্রশিক্ষণ দিয়ে তাদেরকে দক্ষ করে তুলছে। অদক্ষ শ্রমিকের চেয়ে দক্ষ শ্রমিকের মজুরিও বেশি হয়।

মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘বর্তমানে ৭০টি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ৪৮টি ট্রেডে দেশের তরুণ-তরুণীদের প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) মাধ্যমে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের কার্যক্রম ই-মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা হয়েছে।

২০১৭ (জানুয়ারি-নভেম্বর) সালে বিএমইটির আওতায় পরিচালিত কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি) ও আইএমটিসমূহে দক্ষতা উন্নয়ন (ডিপ্লোমা-ইন-মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং, এসএসসি ভোক, দুই বছর মেয়াদী সার্টিফিকেট ইন মেরিন ট্রেড ও অন্যান্য স্বল্পমেয়াদী কোর্স), হাউজকিপিং কোর্স ও প্রাক-বহির্গমন প্রশিক্ষণ কোর্সে সর্বমোট ৭ লাখ ৪২ হাজার ৫১৬ জনকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে বলেও ওই কর্মকর্তা জানান।

এ বিষয়ে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বলেন, ‘মালেশিয়া ও সৌদি আরবের দুটো বাজার আগেও চালু ছিল। আমরা পুনরায় চালু করেছি এবং যোগাযোগ আগের চেয়ে বৃদ্ধি করেছি। যার ফলে, এই দুটো বাজারে আমাদের ব্যাপক সংখ্যক কর্মী গিয়েছে। এর ফলে এই রেকর্ড হয়েছে।’

২০১৮ সালে বিদেশে কর্মী প্রেরণে এ ধারা অব্যাহত রাখা সম্ভব হবে কি না, এমন প্রশ্ন মন্ত্রী বলেন, ‘২০১৭ সালে আমরা যে অর্জন করেছি সেটা ২০১৮ তে অব্যাহত তো রাখার চেষ্টা করবই, পাশাপাশি আমাদের চেষ্টা থাকবে এই অর্জনকে আরও এক ধাপ সামনে এগিয়ে নিযে যাওয়া। এই ক্ষেত্রে আমরা গুরুত্ব দেব দক্ষ ও গুণগত কর্মী প্রেরণে।’

কোন দেশে কত লোক গেছে

মন্ত্রণালয়ের হিসাব বলছে, বিদায়ী বছর বাংলাদেশ থেকে যত মানুষের বিদেশে চাকরি হয়েছে তার মধ্যে অর্ধেকই হয়েছে সৌদি আরবে। ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই দেশটিতে প্রায় সাড়ে ৫ লাখ কর্মী গেছে। এর বাইরে মালয়েশিয়ায় এক লাখ, ওমানে প্রায় ৯০ হাজার এবং কাতারে গেছে ৮২ হাজার জন।

বিদায়ী বছর দেশের বাইরে যাওয়া কর্মীদের মধ্যে নারীর সংখ্যা ১ লাখ ২২ হাজার। এদের মধ্যে সৌদি আরবে গিয়েছেন প্রায় ৮৩ হাজার, জর্ডানে প্রায় ২০ হাজার এবং ওমানে প্রায় ৯ হাজার।

বিগত বছরে বিদেশে যত কর্মী গেছে তার মধ্যে জি টু জি প্লাস প্রক্রিয়ায় মালয়েশিয়ায় গেছে প্রায় এক লাখ। ২০১৬ সালের ১০ আগস্ট সৌদি সরকার বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়েোগে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে।

জনশক্তি রপ্তানি বাড়াতে আরও যত উদ্যোগ

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় জানায়, ২০১৭ সালের মার্চে আইএম জাপান এর সাথে সমঝোতা স্মারক সই করে টেকনিক্যাল ইর্ন্টান কর্মী পাঠাতে শুরু করেছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের সাথে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি, জাপানের সাথে সমঝোতা, মরিশাসের সাথে কর্মী প্রেরণ সংক্রান্ত চুক্তি এবং রাশিয়ার সাথেও কর্মী প্রেরণ সংক্রান্ত চুক্তি চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। এসব চুক্তি অল্প সময়ের মধ্যেই শেষ হবে এবং কর্মী পাঠানো শুরু হবে।

শ্রম কূটনৈতিক প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকায় ২০০৯ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ১৮টি দেশে ১৯টি নতুন শ্রম কল্যাণ উইং খোলা হয়েছে। এরই মধ্যে ২০১৭ সালে লেবানন ও মরিশাস দুইটি দেশে শ্রম কল্যাণ উইং চালু করা হয়েছে। বর্তমানে ২৭ টি দেশের মিশনে ৩০টি শ্রম কল্যাণ উইং অভিবাসন সমর্থিত কূটনৈতিক দায়িত্ব পালন করছে।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় তাদের টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট লক্ষ্যমাত্রা ১০.৭ এর আলোকে নিরাপদ, নিয়মিত ও দায়িত্বশীল অভিবাসন ব্যবস্থাপনা নিশ্চিতে এ মন্ত্রণালয় কাজ করছে। সে লক্ষ্যে অভিবাসন ব্যয় কমানোর চেষ্টা করছে।

এ বছরই সৌদি আরব, সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়াসহ ১৫টি দেশের অভিবাসন ব্যয় নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে জানিয়ে একজন কর্মকর্তা বলেন, এ বিষয়ে সার্বক্ষণিক তদারকি চলছে।

প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা সৌদি আরব ও মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠাতে ব্যয় নির্ধারণ করে দিয়েছি আগেই। আরও ১৫টি দেশের ব্যয় নির্ধারণ করে দেওয়ার কারণে অভিবাসন ব্যয় কমেছে এবং আমরা সার্বক্ষণিক মনিটরিং করেছি।’

‘তাছাড়া জেলা শহরের মধ্যে ফিঙ্গার প্রিন্টের ব্যবস্থা করায় ঢাকায় আসতে হচ্ছে না। ২৯ জেলায় এই সেবা কার্যক্রমের ব্যবস্থা করেছি অর্থাৎ এই সেবাকে ডিসেন্ট্রালাইজ করে দেওয়া এবং দক্ষতার ওপর গুরত্ব দেওয়ার কারণে আমি মনে করি এই রেকর্ড সম্ভব হয়েছে।’

প্রবাসী আয় কত

জনশক্তি রপ্তানি বাড়ায় প্রবাসী আয় বা রেমিট্যান্স বাড়ছে। ২০০৯ থেকে গত ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রবাসী কর্মীরা বাংলাদেশে এক লাখ ১৮ হাজার ৭০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পাঠিয়েছেন। এর মধ্যে ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে নভেম্বর পর্যন্ত রেমিট্যান্স এসেছে ১২ হাজার ৩৫৯ মিলিয়ন ডলার।

বছরের শুরু দিকে রেমিট্যান্স এর পরিমাণ কম থাকায় অর্থ মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ ব্যাংকের সাথে আলোচনা করে রেমিট্যান্স কমার কারণ খুঁজে বের করা হয়। এরপর মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে দেশের প্রতিটি জেলায় জনশক্তি ও কর্মসংস্থান অফিস এবং বিদেশে শ্রম কল্যাণ উইং এর মাধ্যমে বৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রেরণের প্রচার চালানো হয়। ফলে এখন রেমিট্যান্স প্রেরণে গতি বেড়েছে।

এখানে মাত্র ১০০ টাকাতেই মিলে শিশু যৌনকর্মীও!
দিনাজপুরে জেডিসি-তে তিন যমজ বোনের অনন্য এক অর্জন!
সৌদি প্রবাসীরা জেনে নিন কোন পন্যের কত ভ্যাট? (তালিকা সহ)


সর্বশেষ সংবাদ

কাশ্মিরের মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ

আজকে খালেদা জিয়ার রাজনীতির ৩৪ বছর পূর্ণ হল

এই ধরণের বিষয়ে ঝুঁকি নেয়া যায় না, অপেক্ষা করা সাধারণ বিষয়

যুক্তরাষ্ট্র নতুন করে যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করল ইরানের উপর

আমি যদি প্রধানমন্ত্রী হতাম ঘাড় ধরে মতিয়া চৌধুরীকে বের করে দিতাম

অনলাইনে মেয়েকে বিক্রি, বাবার ৬০ বছর জেল

চট্টগ্রামে তাবলিগ মসজিদে উত্তেজনা, পুলিশ-পাহারা

সজনে ডাঁটার ঔষধি গুণাগুণ

নতুন নিয়মে পিতৃত্বকালীন ছুটি এক মাস!

ফেব্রুয়ারির মধ্যে কঙ্গনার বিয়ে

মেয়ের চিকিৎসার টাকা যোগাতে বুকের দুধ বিক্রি!

রাজধানীতে নকল প্রযুক্তি পণ্যে সয়লাব বাজার

আইকন তালিকা থেকে বাদ পড়ল সাব্বির রহমান

শূন্যে ছুড়ে বাচ্চাকে আদর করলে হতে পারে মহাবিপদ!

রাজধানীতে ‘জঙ্গি’ অভিযানঃ নিহত ৩

দাম কমেছে পেঁয়াজের

বিমানবন্দর থেকে কাকরাইলে মাওলানা সাদ, সারাদেশ অচল করে দেয়ার হুমকি

‘আর কত বাঁধ হবে তিস্তার ওপরে?’

স্বামী-স্ত্রীর উচ্চতার পার্থক্যেই দাম্পত্য সুখের হয়

ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে খুলনায় আহত ৭





error: Content is protected !!
Copy to clipboard