বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০১৮ ইং। ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। রাত ১২:১৪








প্রচ্ছদ » রাজনীতি

জেলে যেতেই হবে বেগম জিয়াকে

আদালতে আত্মসমর্পণ ছাড়াই ঘুষ নেওয়ার অভিযোগের মামলায় হাইকোর্টের সাজার বিরুদ্ধে আপিল আবেদনে ব্যর্থ হয়েছেন সাবেক মন্ত্রী নাজমুল হুদা। রোববার তাঁর সাজার বিরুদ্ধে আপিল আবেদন করতে হলফনামার অনুমতি চেয়ে করা আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ হয়ে যায় আপিল বিভাগে।

এই রায়ের মাধ্যমে একটি বিষয় নিশ্চিত হলো আত্মসমর্পন করে নাজমুল হুদাকে কারাগারে যেতেই হবে। এরপর আসবে বিচারিক প্রক্রিয়া। আর এটি একই সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম জিয়ার জন্যও বজ্রাহতের মতোই বিষয়।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

আইন বিশেষজ্ঞদের মতে, এটি এখন দিনের মতো পরিষ্কার, বেগম জিয়া দুই মামলায় দণ্ডিত হলে নাজমুল হুদার মতো তাঁকে একদিনের জন্য হলেও কারগারে যেতে হবে।

রোববার ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহহাব মিঞার নেতৃত্বে আপিল বিভাগের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে ঘুষের মামলার আপিল নিয়ে আদেশ দেন।

আদালতে নাজমুল হুদা নিজেই শুনানি করেন। আদালত জানায়, রুলসে এটার সুযোগ নেই। আগে আত্মসমর্পণ করতে হবে। জবাবে নাজমুল হুদা বলেন, এ মামলায় আপিল বিভাগের দেওয়া আগের আদেশ আইন সম্মত হয়নি। আদালত বলেন, আপিল বিভাগের আদেশ চ্যালেঞ্জ করে রিট আবেদন করার সুযোগ নেই।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, হাইকোর্টের রায় পাওয়ার ৪৫ দিনের মধ্যে নাজমুল হুদাকে আত্মসমর্পণ করতে হবে। পরে তিনি এই আবেদন করত পারবেন।

নাজমুল হুদা যে পদ্ধতিতে আপিল করতে গিয়ে ব্যর্থ হয়ে এখন কারাগারে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন, সেই একই পদ্ধতিতে বেগম জিয়ার আপিলও করার ইচ্ছা তাঁর আইনজীবীদের।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট এবং জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বেগম জিয়ার দণ্ড হলে আপিল বিভাগে আবেদন করবেন। একই বেঞ্চ একই ধরনের আবেদনে দুরকম অবজারভেশন হবে না, তাই বেগম জিয়াকে কারাগারে যেতেই হবে।

৮ নভেম্বর হাইকোর্ট দুর্নীতির এক মামলায় নাজমুল হুদাকে চার বছর কারাদণ্ড এবং স্ত্রী সিগমা হুদার কারাভোগকালীন সময়কে তাঁর সাজা হিসেবে ঘোষণা করেন। আদালত ওই রায়ের অনুলিপি পাওয়ার ৪৫ দিনের মধ্যে তাঁকে আত্মসমর্পণ করতে বলেন।

আর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে তিন কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগে ২০১০ সালের ৮ আগস্ট রাজধানীর তেজগাঁও থানায় একটি মামলা করে দুদক।

এছাড়া জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের নামে এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে আসা দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রাজধানীর রমনা থানায় অপর মামলাটি করা হয়।

দুটি মামলায়ই আসামি বেগম জিয়া। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বেগম জিয়ার পরবর্তী শুনানি ১০ জানুয়ারি। আর দুটি মামলার বিচারিক কার্যক্রমই শেষ পর্যায়ের বলেই জানা গেছে।

বাংলা ইনসাইডার

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কড়া হুঁশিয়ারি, জনসমর্থন আরও না বাড়ালে ভাগ্য বিপর্যয় ঘটবে আওয়ামী লীগের দুই শীর্ষ নেতার। এ জন্য দুই নেতাকে নির্দিষ্ট সময়সীমাও বেঁধে দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি। এ হুঁশিয়ারির পাশাপাশি তাদের সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে নির্বাচনের জন্য প্রার্থী হিসেবে সবুজ সংকেতও দেওয়া হয়েছে।

এ দুই নেতা হচ্ছেন সিলেটের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান ও রাজশাহীর সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। দু’জনই আওয়ামী লীগের সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী ফোরাম কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য।

আওয়ামী লীগের কয়েকজন নীতি-নির্ধারক নেতা সমকালকে জানিয়েছেন, এরই মধ্যে বদর উদ্দিন আহমদ কামরানকে সিলেট সিটি করপোরেশন এবং এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে সবুজ সংকেত দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত শনিবার দলের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে আলোচিত দুই নেতার মনোনয়নের বিষয়টি আবারও নিশ্চিত করেছেন।

এই ক্ষেত্রে শর্তও জুড়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি দুই নেতার উদ্দেশে বলেছেন, সিটি করপোরেশনের নির্বাচন যখনই হোক না কেন- নির্বাচনে অংশগ্রহণের প্রস্তুতি অব্যাহত রাখতে হবে।

ভোটার তালিকা ধরে নির্বাচনী প্রচার চালাতে হবে। প্রতিটি ভোটারের কাছে গিয়ে ভোট চাইতে হবে। সেই সঙ্গে তাদের বর্তমান সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের বিবরণও স্মরণ করিয়ে দিতে হবে। আগামী দুই মাসের মধ্যে এই নির্দেশনা কার্যকর না হলে প্রার্থী বদলের কথাও বলেছেন প্রধানমন্ত্রী।

বদর উদ্দিন আহমদ এবং এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের কাছে তাদের নির্বাচনী প্রস্তুতিও জানতে চান আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। এ সময় প্রধানমন্ত্রীকে দুই নেতা জানান, তারা এরই মধ্যে পুরোদমে আগাম নির্বাচনী প্রচার কার্যক্রম শুরু করেছেন।

এলাকায় বিভিন্ন গ্রুপে বিভক্ত হয়ে ভোটারদের কাছে গিয়ে ভোট চাইছেন। এখন থেকে নির্বাচনী প্রচার কার্যক্রমে আরও গতি আনবেন বলে প্রধানমন্ত্রীকে জানান দুই নেতা।

এদিকে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান সমকালকে বলেছেন, গত শনিবার আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় প্রার্থী হিসেবে তাকে আবারও সবুজ সংকেত দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন, নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

একই কথা বলেছেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। তিনি সমকালকে জানিয়েছেন, রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে তাকে আরেক দফায় সবুজ সংকেত দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

একই সঙ্গে তিনি প্রতিটি ভোটারের কাছে গিয়ে ভোট প্রার্থনার তাগিদ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনি নিয়মিত মনিটরিং করবেন। ঠিক মতো ভোটারদের কাছে না গেলে মেয়র পদে বিকল্প চিন্তা করবেন। এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন নিয়মিত ভোটারদের সঙ্গে সংযোগ রাখছেন বলে প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন।

আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে কয়েকজন নেতা বলেন, বিভিন্ন সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে রয়েছেন বিএনপি নেতারা। সেগুলোতে উন্নয়ন কার্যক্রমে বরাদ্দ দেওয়ার বেলায় এ বিষয়টির দিকে দৃষ্টি দেওয়া উচিত।

এর জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্পষ্ট বলেন, বিভিন্ন সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে বিএনপি নেতারা থাকতেই পারেন। তাই বলে উন্নয়ন কার্যক্রমে কিছুতেই বৈষম্য আনা যাবে না। বর্তমান সরকার সমানভাবে সব সিটি করপোরেশনের উন্নয়ন কার্যক্রমে বরাদ্দ দিয়েছে। এ কারণে সব সিটি করপোরেশনে ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে।

গুলি খাবো তবুও সড়কে হকার বসতে দেবো না
আ’লীগকে তিনবার ক্ষমতায় আনার বিনিময়ে কিছুই পাইনি : এরশাদ
পদ্মা সেতু হলে আমরা একটু খেয়াল করবো খালেদা জিয়া ও তার দলের লোকেরা উঠবেন কিনা : ওবায়দুল কাদের


সর্বশেষ সংবাদ

কাশ্মিরের মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ

আজকে খালেদা জিয়ার রাজনীতির ৩৪ বছর পূর্ণ হল

এই ধরণের বিষয়ে ঝুঁকি নেয়া যায় না, অপেক্ষা করা সাধারণ বিষয়

যুক্তরাষ্ট্র নতুন করে যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করল ইরানের উপর

আমি যদি প্রধানমন্ত্রী হতাম ঘাড় ধরে মতিয়া চৌধুরীকে বের করে দিতাম

অনলাইনে মেয়েকে বিক্রি, বাবার ৬০ বছর জেল

চট্টগ্রামে তাবলিগ মসজিদে উত্তেজনা, পুলিশ-পাহারা

সজনে ডাঁটার ঔষধি গুণাগুণ

নতুন নিয়মে পিতৃত্বকালীন ছুটি এক মাস!

ফেব্রুয়ারির মধ্যে কঙ্গনার বিয়ে

মেয়ের চিকিৎসার টাকা যোগাতে বুকের দুধ বিক্রি!

রাজধানীতে নকল প্রযুক্তি পণ্যে সয়লাব বাজার

আইকন তালিকা থেকে বাদ পড়ল সাব্বির রহমান

শূন্যে ছুড়ে বাচ্চাকে আদর করলে হতে পারে মহাবিপদ!

রাজধানীতে ‘জঙ্গি’ অভিযানঃ নিহত ৩

দাম কমেছে পেঁয়াজের

বিমানবন্দর থেকে কাকরাইলে মাওলানা সাদ, সারাদেশ অচল করে দেয়ার হুমকি

‘আর কত বাঁধ হবে তিস্তার ওপরে?’

স্বামী-স্ত্রীর উচ্চতার পার্থক্যেই দাম্পত্য সুখের হয়

ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে খুলনায় আহত ৭





error: Content is protected !!
Copy to clipboard