সোমবার, ২৩শে জুলাই, ২০১৮ ইং। ৮ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। বিকাল ৩:১৩








প্রচ্ছদ » সারাদেশ

চট্টগ্রামে তাবলিগ মসজিদে উত্তেজনা, পুলিশ-পাহারা

গত জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে বিশ্ব ইজতেমাকে সামনে রেখে তাবলিগ জামাতে বিভক্তির ঢেউ অবশেষে আছড়ে পড়লো চট্টগ্রাম নগরীর লাভলেইন তাবলিগ মসজিদে।

হেফাজতে ইসলামের আমীর মাওলানা আহমেদ শফির অনুসারী একটি তাবলিগ গ্রুপ বিশ্ব তাবলিগের আমীর মাওলানা সাদ কান্ধলভীর নেতৃত্বের প্রতি অনাস্থা এনে ৮ সদস্যের শূরা কমিটি গঠন করে বৃহস্পতিবার লাভলেইন মসজিদে প্রবেশের ঘোষণাকে কেন্দ্র করে দুইপক্ষ মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছে বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

পুলিশের হস্তক্ষেপ ও পাহারায় কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটলেও দুইপক্ষের মাঝে উত্তেজনা চলছে। রাত সাড়ে ৮টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর বিপুল সদস্য লাভলেইন মাদানি মসজিদ ঘিরে অবস্থান করছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে সিএমপি কমিশনার ইকবাল বাহার বরাবরে লাভলেইন মাদানি মসজিদ তবলিগ মার্কাসে বহিরাগত হস্তক্ষেপ ও শান্তিভঙ্গের আশঙ্কা করে একটি আবেদন করে মসজিদের বর্তমান শূরা কমিটি।

আবুল কালাম আজাদ ও আবদুল হালিমের করা আবেদনে বলা হয়, হাটহাজারী মাদ্রাসার মাওলানা আহমেদ শফির আহ্বানে বুধবার (২১ মার্চ) অনুষ্ঠিত বৈঠকে ৮ সদস্যের শূরা কমিটি গঠন করে তাদেরকে লাভলেইন মারকাযের মজলিসে শূরার বর্তমান সদস্যবৃন্দের সাথে সংযুক্ত করতে বলা হয়।

এছাড়া যতদিন পর্যন্ত দারুল উলুম দেওবন্দ মাওলানা সাদ সাহেবের ব্যাপারে লিখিত আস্থা প্রকাশ করবে না এবং নিজামুদ্দীন মারকাযের ব্যাপারে কোনো আলোচনা করা যাবে না এবং নিজামুদ্দীনে কাউকে পাঠানো যাবে না এবং বৃহস্পতিবার (২২ মার্চ) বাদ আছর থেকে লাভলেইন মারকাযে উলামা-মাশায়েখ এবং তাবলিগী সাথীদের জোড় অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা জানিয়ে তাতে সবাইকে উপস্থিত থাকার অনুরোধ সম্বলিত রেজুলেশন বুধবার থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়া হয়।

এ অবস্থায় লাভলেইন মারকাযের মজলিসে শূরা সদস্য ও তাদের অনুসারীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে তারা পুলিশ কমিশনারের সহযোগিতা ও হস্তক্ষেপ কামনা করে। এর প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে লাভলেইন মাদানি মসজিদের সামনে ও আশপাশে পুলিশ এসে অবস্থান নেয়।

সিএমপির উপ পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এসএম মোস্তাইন বলেন, তাবলিগের দুই গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা ও মুখোমুখি অবস্থানের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করেছি। পুলিশের কঠোর অবস্থানের কারণে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

কোতোয়ালী থানার ওসি জসিম উদ্দিন বলেন, বর্তমান শূরা কমিটির বিপরীতে হাটহাজারী মাদ্রাসার মাওলানা শফি সাহেবের অনুসারীরা আরেকটি শূরা কমিটি গঠন করে মাদানি মসজিদে প্রবেশ করার ঘোষণা এবং এতে শান্তিভঙ্গের আশঙ্কায় বর্তমান শূরা কমিটির সদস্য আবদুল হালিম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এর প্রেক্ষিতে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। কোনো ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা যাতে ঘটতে না পেরে সেজন্য পুলিশ সতর্ক অবস্থান গ্রহণ করে।

ভারতের দিল্লির মাওলানা মুহাম্মদ ইলিয়াস কান্ধলভী (রহ.) ১৯২০-এর দশকে তাবলিগ জামাতের সূচনা করেন। এর উদ্দেশ্য ইসলামের মৌলিক মূল্যবোধের প্রচার। বিতর্ক থেকে দূরে থাকতে তাবলিগে রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হয় না। এর মূল মারকাজ দিল্লিতে। মাওলানা ইলিয়াস (রহ.)-এর মৃত্যুর পর তাঁর ছেলে মাওলানা মোহাম্মদ ইউসুফ নেতৃত্বে আসেন। তাঁর মৃত্যুর পর ইউসুফের ছেলে মাওলানা সাদ কান্ধলভী আমির হন।

তাবলিগ জামাত সূত্র জানায়, মাওলানা সাদ ১৯৮৯ সাল থেকে টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমায় আসা শুরু করেন। ১৯৯৬ সাল থেকে তিনি ইজতেমায় বয়ান করে আসছেন। গত দুই বছর তিনি আমবয়ানের পাশাপাশি আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন।

হজরত মুসা (আ.) এবং কোরআন শিক্ষার বিনিময় নেওয়া নিয়ে মাওলানা সাদ-এর বিতর্কিত দুটি বক্তব্যের অভিযোগে এবার তাঁর নেতৃত্ব নিয়ে তাবলিগ জামাতকেন্দ্রিক আলেম সমাজ বিভক্ত হয়ে পড়ে। এই বিভক্তির প্রকাশ ঘটে এবার বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে তাঁর ঢাকায় আসার পর। বিভক্ত গ্রুপ বিশ্ব ইজতেমায় মাওলানা সাদের অংশগ্রহণ ঠেকানোর ঘোষণা দেন। একপর্যায়ে বিশ্ব ইজতেমায় অংশ না গ্রহণ করে ঢাকা থেকেই দিল্লিতে ফিরে যেতে বাধ্য হন মাওলানা সাদ।

মাদানি মসজিদ শূরা কমিটির নেতৃবৃন্দ জানান, মাওলানা সাদের যে বক্তব্যের কারণে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল, সে ব্যাপারে ইতিপূর্বে তিনি লিখিত ও মৌখিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করে বক্তব্য দিয়েছেন। তাঁর বক্তব্যে আস্থাশীল হয়ে ইতিমধ্যে ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দ মাদ্রাসার মোহতামিম (অধ্যক্ষ) আবুল কাসেম নোমানী মাওলানা সাদকে চিঠি দিয়েছেন। এরপরও একটি পক্ষ দেওবন্দ মাদ্রাসার দোহাই দিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে।

এ ব্যাপারে মাওলানা আহমেদ শফি অনুসারী তাবলিগ গ্রুপটির বক্তব্য জানা যায়নি।

শিশুর চোঁখ উপড়ে ফেলল দুর্বৃত্তরা
স্ত্রী কে শ্বাসরোধে হত্যার ঘটনায় ঘাতক স্বামী আটক
দেশের প্রথম ক্রুজ টার্মিনালের যাত্রা শুরু কক্সবাজারের সমুদ্র উপকূলে


সর্বশেষ সংবাদ

কাশ্মিরের মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ

আজকে খালেদা জিয়ার রাজনীতির ৩৪ বছর পূর্ণ হল

এই ধরণের বিষয়ে ঝুঁকি নেয়া যায় না, অপেক্ষা করা সাধারণ বিষয়

যুক্তরাষ্ট্র নতুন করে যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করল ইরানের উপর

আমি যদি প্রধানমন্ত্রী হতাম ঘাড় ধরে মতিয়া চৌধুরীকে বের করে দিতাম

অনলাইনে মেয়েকে বিক্রি, বাবার ৬০ বছর জেল

চট্টগ্রামে তাবলিগ মসজিদে উত্তেজনা, পুলিশ-পাহারা

সজনে ডাঁটার ঔষধি গুণাগুণ

নতুন নিয়মে পিতৃত্বকালীন ছুটি এক মাস!

ফেব্রুয়ারির মধ্যে কঙ্গনার বিয়ে

মেয়ের চিকিৎসার টাকা যোগাতে বুকের দুধ বিক্রি!

রাজধানীতে নকল প্রযুক্তি পণ্যে সয়লাব বাজার

আইকন তালিকা থেকে বাদ পড়ল সাব্বির রহমান

শূন্যে ছুড়ে বাচ্চাকে আদর করলে হতে পারে মহাবিপদ!

রাজধানীতে ‘জঙ্গি’ অভিযানঃ নিহত ৩

দাম কমেছে পেঁয়াজের

বিমানবন্দর থেকে কাকরাইলে মাওলানা সাদ, সারাদেশ অচল করে দেয়ার হুমকি

‘আর কত বাঁধ হবে তিস্তার ওপরে?’

স্বামী-স্ত্রীর উচ্চতার পার্থক্যেই দাম্পত্য সুখের হয়

ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে খুলনায় আহত ৭





error: Content is protected !!
Copy to clipboard