বুধবার, ২৩শে জানুয়ারি, ২০১৯ ইং। ১০ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। সকাল ৯:৫৫








প্রচ্ছদ » এটা কোন ক্যাটাগরি না (Super Six)

মাদারীপুরে বাবার ইচ্ছা পূরণে হেলিকপ্টারে চড়ে বউ নিয়ে গেলেন বর

সারাদেশে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের অবাক করার ঘটনা অহরহ ঘটছে ।এমনি একটি অবাক ঘটনার সাক্ষী হলো মাদারীপুরের শিবচরে । জানা গেছেবাবার ইচ্ছা পূরণ করতে মাদারীপুরের শিবচরে হেলিকপ্টারে এসে বিয়ে করে বৌ নিয়ে গেলেন বর এ্যাডভোকেট মোঃ উজ্জল মিয়া। এই বিয়েকে কেন্দ্র করে বিয়েবাড়িসহ আশপাশের গ্রামজুড়ে ছিল উৎসব মুখর পরিবেশ। ছিল বাদ্যের ঝংকার, হরেক রকম খাবারের আয়োজন।

সরেজমিন জানা যায়, উপজেলার কাদিরপুর ইউনিয়নের ডিগ্রিরচর গ্রামের প্রবাসী দেলোয়ার হোসেন চকিদারের একমাত্র মেয়ে সুমাইয়া আক্তার লিজার সাথে শরিয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার বিলদেওয়ানিয়া গ্রামের ব্যবসায়ী মজিবুর রহমান মোল্লার একমাত্র ছেলে এ্যাডভোকেট মোঃ উজ্জল মিয়ার সাথে গত ২২ জুন বিয়ের কাবিন হয়। বর উজ্জল পরিবারসহ ঢাকার লালবাগে বসবাস করেন।

বিস্তারিত পড়তে Read More ক্লিক করুন...

ছেলের বাবার পূর্বে থেকেই ইচ্ছে ছিল তার একমাত্র ছেলে হেলিকপ্টারে চড়ে শ্বশুর বাড়ি যাবে ও ছেলের বউকে নিজের বাড়ি নিয়ে আসবে। সেই মোতাবেক বাবার ইচ্ছা পূরণে বর উজ্জল বুধবার দুপুরে প্রায় ২শ বরযাত্রীসহ কনেকে নিতে শিবচর আসে। বরযাত্রীরা তিনটি বাসে চড়ে কনে বাড়ি আসলেও বর আসে হেলিকপ্টারে চড়ে। প্রত্যন্ত গ্রামে হেলিকপ্টারে বর আসাকে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই ছিল উৎসব মুখর পরিবেশ। একাধিক গেটে ছিল বর-কনের ছবি সংবলিত ব্যানার। ছিল বাদ্যকার দলসহ নানান আয়োজন।

বরযাত্রী ও গ্রামাবাসীদের আপ্যায়নেও ছিল ভিন্নতর সংযোজন। তবে এতসব আয়োজনেও কনের বাবা ছিল প্রবাসে। প্রবাসে থেকেও এই বাবা আয়োজনে কোন কমতি রাখেননি। যা প্রশংসা কুড়িয়েছে আগত সকলের। ব্যতিক্রমধর্মী এই আয়োজন সামাল দিতে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বিএম জাহাঙ্গীর হোসেন ও থানা পুলিশের টিম।বর এ্যাডভোকেট উজ্জল মিয়া বলেন, বাবার ইচ্ছা পূরণ করতেই হেলিকপ্টারটি ভাড়া করা হয়।

এ ঘটনার বিষয়ে কাদিরপুর ইউপি চেয়ারম্যান বিএম জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, হেলিকপ্টারে চড়ে এই বিয়েকে কেন্দ্র করে আমাদের গ্রামে সকাল থেকেই উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে।সবাই খুব আনন্দ পেয়েছে। শুভ কামানা উজ্জল মিয়ার বিবাহকে ।