রবিবার, ২৬শে মার্চ, ২০১৭ ইং। ১২ই চৈত্র, ১৪২৩ বঙ্গাব্দ। সন্ধ্যা ৬:৫৪






প্রচ্ছদ » প্রধান সংবাদ

সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ১১ বিষয়: আ. লীগ

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ মনে করে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য মোট ১১টি বিষয় অতীব গুরুত্বপূর্ণ। নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপে এই বিষয়গুলো তুলে ধরেছে দলটি।

বুধবার বিকালে বঙ্গভবনে এই সংলাপে অংশ নেয় আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দলের ১৯ সদস্যের প্রতিনিধি দল। বিকাল চারটা থেকে সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত এই সংলাপ শেষে ধানমন্ডিতে দলের সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি জানান, ইভিএম চালু, নির্বাচন কমিশন গঠন বিষয়ে আইন করাসহ মোট চারটি প্রস্তাব তুলে ধরেছেন তারা।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন...

এই প্রস্তাব চারটি হলো, ক. সংবিধানের ১১৮ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য কমিশনার নিয়োগ। খ. রাষ্ট্রপতি যেভাবে চাইবেন সেভাবেই প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য কমিশনারদের নিয়োগ দেবেন। গ. প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়েগের লক্ষ্যে সম্ভব হলে এখনই একটি উপযুক্ত আইন প্রণয়ন অথবা অধ্যাদেশ জারি করা। আর সময় সময় স্বল্পতার কারণে তা সম্ভব না হলে পরের নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের সময় তা বাস্তবায়ন করা এবং ঘ. ই ভোটিং প্রবর্তন।

সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ১১ বিষয়

আওয়ামী লীগের প্রস্তাবে এও বলা হয়, সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য বেশ কিছু বিষয় অতীব গুরুত্বপূর্ণ। এগুলো হলো:

১. একটি স্বাধীন ও কার্যকরী নির্বাচনী প্রশাসন।

২. নির্বাচন কালীন সময়ে নির্বাহী বিভাগের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/সংস্থার দায়িত্বশীলতা।

৩. নির্বাচন কমিশন সচিবালয় এবং এর মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা কর্মচারীদের দায়িত্বশীল ও নিরপেক্ষ আচরণ।

৪. ছবিযুক্ত একটি নির্ভুল ভোটার তালিকা এবং ভোটগ্রহণের দিন নির্বাচন কেন্দ্রের সার্বিক নিরাপত্তা।

৫. নির্বাচন পরিচালনায় বেসরকারি সংস্থা বা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের পরিবর্তে কেবল মাত্র প্রজাতন্ত্রের প্রজাতন্ত্রের দায়িত্বশীল কর্মকর্তা/কর্মকারীদের প্রিজাইডিং অফিসার থেকে পোলিং অফিসার পদে নিয়োগ।

৬. আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত সদস্যদের নিরপেক্ষ ও দায়িত্বশীল আচরণ।

৭. দেশি বিদেশি পর্যটক থেকে শুরু করে মিডিয়া ও সিভিল সোসাইটির সদস্যদের নির্মোহ তৎপরতা।

৮. নির্বাচনে পেশি শক্তি ও অর্থের প্রয়োগ বন্ধ এবং ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়সহ সকল পর্যায়ের ভোটারের অবাধ ভোটদানের সুযোগ নিশ্চিত করা।

৯. নির্বাচনের পূর্বে এবং পরে এবং নির্বাচনের দিন ভোটারসহ সর্বসাধারণের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।

১০. নির্বাচনকালীন সময়ে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ নির্বাচন পরিচালনার জন্যে আবশ্যকীয় সকল সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানকে নির্বাচন কমিশনের তত্বাবধানে ন্যস্ত করা।

১১. নির্বাচন কালীন সরকারের কর্মপরিধি কেবলমাত্র আবশ্যকীয় দৈনন্দিন (রুটিন) কার্যাবলীর মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা।

বঙ্গবন্ধু সংবিধানে সকল ধর্মের মানুষকে সমান অধিকার দিয়ে গেছেন: প্রতিমন্ত্রী চুমকি
কাদের সিদ্দিকীর মনোনয়নপত্র নিয়ে শুনানি শুরু
জামায়াতের ২৮ নারী কর্মীকে রিমান্ডে চায় পুলিশ




সর্বশেষ সংবাদ

ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সামনে হামলা হয়েছে ৮২ সেকেন্ডে: পুলিশ

দেড় বছর পর বাপ্পি-আঁচল

রাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনায় ক্যামব্রিয়ান কলেজের শিক্ষিকা নিহত

যে কারণে ইউটিউব থেকে তুলে নেওয়া হচ্ছে কোম্পানির বিজ্ঞাপন!

‘গণহত্যা দিবসের কোনো অনুষ্ঠানের দাওয়াত পাইনি’ : কাদের সিদ্দিকী

কাতারে অসুস্থ প্রবাসীদের পাশে আল নূর সেন্টার

বৈশাখী গানে কোনাল

মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের কেউ চাকরি ছাড়া থাকবে না : এলজিআরডি মন্ত্রী

মালয়েশিয়ায় ই-কার্ড না করে ৩০ জুনের পর ধরা পরলে ৫০হাজার রিংগিত জরিমানা ও ১২ মাসের জেল

বিএনপির শোভাযাত্রায় হাতি, ঘোড়া, ‘গণতন্ত্রের কফিন’

সব জেলা পুলিশ সুপারকে সর্তক বার্তা

সৌদি আরবকে নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য : জঙ্গিদের অর্থদাতা তারাই!

অভিযানের ৩২ ঘণ্টা পর জঙ্গিদের অজ্ঞান করতে ‘ক্লোরোফর্ম গ্যাস’

দুবাইয়ে প্রবাসী বাংলাদেশির মৃত্যু

গাড়িতে নিজের বাচ্চা নিজেই প্রসব করে,সারা দুনিয়ায় আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন এই মহিলা

পুলিশকে বিশেষ নির্দেশনা

নিজেদের সেনাদের জন্য রাশিয়ার কাছ থেকে অস্ত্র কিনছে যুক্তরাষ্ট্র

ফাঁসির আগে যা বলেছিলেন সক্রেটিস, সূর্য সেন, তাহের, ভুট্টো, নওয়াজিশ, সাদ্দাম, ফারুক, কাদের মোল্লা ও অন্যান্য

অ্যানড্রয়েড স্মার্টফোন ব্যবহার করেন অথচ এই CODE গুলো জানেন না?

মসুলে নিরীহ মানুষ হত্যার দায় স্বীকার করেছে যুক্তরাষ্ট্র



error: Content is protected !!
[X]